২২শে ফেব্রুয়ারি, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, বৃহস্পতিবার, সকাল ১১:০৯
ব্রেকিংনিউজ :

উচ্ছেদ হলেও চাঁদাবাজদের দিতে হচ্ছে চাঁদা

শিমরাইল মোড়ের ফুটপাতের সওজের উচ্ছেদ আতংকে স্টোক করে হকারের মৃত্যু

সবারকন্ঠ রিপোর্ট
  • আপডেট : মে, ১৭, ২০২২, ১০:৫৭ অপরাহ্ণ
  • ১৭৮ ০৯ বার দেখা হয়েছে
আতংকে-স্টোক-করে-হকারের-মৃত্যু

ঢাকা-চট্রগ্রাম মহাসড়কের সিদ্ধিরগঞ্জের শিমরাইল মোড়ে সওজের উচ্ছেদ অভিযান চলাকালে আতংকে স্টোক করে আব্দুল কাদির (৪৭) নামে এক হকারের মৃত্যু হয়েছে। সে শিমরাইল মোড়ের ফুটপাতে মোবাইল ফোনের মালামাল বিক্রি করতো। মঙ্গলবার (১৭ মে) সন্ধ্যা ৬টার দিকে হঠাৎ করে ঢাকা-চট্রগ্রাম মহাসড়কের শিমরাইল মোড়ে উচ্ছেদ অভিযান শুরু করে নারায়ণগঞ্জ সওজ কর্তৃপক্ষ। এসময় আতংকে দোকানের মালামাল সরাতে গিয়ে জ্ঞান হারিয়ে ফেলেন হকার আব্দুল কাদির। পরে তাকে উদ্ধার করে স্থানীয় প্রো-অ্যাকটিভ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মোঃ ইমরান হোসেন তাকে মৃত ঘোষনা করেন।

নারায়ণগঞ্জ সওজের উপ -বিভাগীয় প্রকৌশলী সাখাওয়াত হোসেন শামীম বলেন,আদমজী ইপিজেড সড়কে যানজট মুক্ত রাখতে শিমরাইল মোড়ের সার্ভিস লেনে উচ্ছেদ করা হয়েছে। এরআগেও আমরা একাধিক বার উচ্ছেদ পরিচালনা করেছি। কিন্তু বার বার হকাররা লাইনটি দখল করে নেয়। পুলিশ একটু অ্যাকটিভ হলে হকার মুক্ত ফুটপাত হলে সড়কটি যানজট মুক্ত হয়ে যাবে।

হকার আব্দুল কাদিরের আত্মীয় মোঃ রাসেল বলেন, নিহত হকার আব্দুল কাদির পরিবার নিয়ে ঢাকার ডেমরার বক্সনগর এলাকায় বসবাস করতেন। তার ৩ মেয়ে ও দেড় মাসের একটি ছেলে সন্তান রয়েছে। সে ঈদের পূর্বে একটি মাল্টিপারপাস থেকে ৫০ হাজার টাকা ঋন নিয়ে ফুটপাতে ব্যবসা করে আসছিলো। সে তার দোকান ভাঙ্গার কথা শুনে আচমকা মথা ঘুরে মাটিতে পড়ে যায় আর বলে আমার সব শেষ হয়ে গেজে আমি কি ভাবে সুদের  টাকা পরিশোধ করবো।

নিহত আব্দুল কাদিরের বাড়ী দাউদকান্দি জেলার গরীপুর উপজেলার গোপালপুল এলাকার আব্দুল গফুরের ছেলে।

এদিকে শিমরাইল মোড়ে  ফুটপাতের হকার বলেন, নারায়ণগঞ্জ সওজের উচ্ছেদ অভিযান পরিচালনা করে আমাদের দোকান গুড়িয়ে দিয়ে যাওয়ার সাথে সাথে কাউন্সিলর শাহজালাল বাদলের লোক চাঁদাবাজ ঈসমাইল, সোহাগ, আকতার,শামীম,ইকবাল সহ আরো কিছু লোক এসে প্রতিদিনের ন্যায় আজকে চাঁদা চাই।

তারা বলে ফুটপাত ভাঙ্গা থাকবেই তাতে আমাদের যায় আসে না কিছু তোমরা আমাদের টাকা দেও। এভাবে ফুটপাতের দোকানদারকে চাপ সৃষ্টি করে কাউন্সিলর বাদলের চাঁদাবাজ সিন্ডিকেট। তাদের চাঁদাবাজির কারনে অতিষ্ঠ হয়ে পড়েছে শিমরাইল মোড়ের ফুটপাতের ব্যবসায়ীরা। ফুটপাতের প্রতিটি দোকান থেকে ২৫০ টাকা করে চাঁদা উত্তোলন করে কাউন্সিলর বাদলের চাঁদাবাজ সিন্ডিকেট। দোকানদার চাঁদা দিতে দেরী হলে বা চাঁদা দিতে অস্বীকার করলে কাউন্সিলর বাদলের চাঁদাবাজ সিন্ডিকেট অকথ্য ভাষায় গালি গালাজ করে।

সংবাদটি শেয়ার করে সবাই কে দেখার সুযোগ করে দিন

এ বিভাগের আরো খবর
এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত  © ২০২১ সবার কন্ঠ
Design & Developed BY:Host cell BD
ThemesCell